আজ ৩রা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৭ই মে, ২০২২ ইং

সুনামগঞ্জে সাংবাদিক কারাগারে, বিভিন্ন সংগঠনের নিন্দা ও মুক্তি দাবি

সংবাদদাতা, সুনামগঞ্জ :: সুনামগঞ্জ থেকে প্রকাশিত স্থানীয় ‘দৈনিক হাওরাঞ্চলের কথা পত্রিকার সম্পাদক ও এস.এ টিভির জেলা প্রতিনিধি সাংবাদিক মাহতাব উদ্দিন তালুকদারকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেফতার করা হয়েছে। সুনামগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতনকে নিয়ে তার ফেসবুকে দুদক মামলায় গ্রেফতার করা হয়েছে এমন পোস্ট দেওয়ার অভিযোগে সোমবার গভীর রাতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এর আগে সোমবার (৪ মে) রাতে ওই সাংবাদিকের বিরুদ্ধে জেলার ধর্মপাশা থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করেন উপজেলার সেলবরষ ইউনিয়নের উত্তরবীর গ্রামের বাসিন্দা বেনোয়ার হোসেন খান। তিনি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সংসদ সদস্যের সমর্থক বলে জানা গেছে।

এদিকে, সুনামগঞ্জ জেলা সাংবাদিক ফোরামের নেতৃবৃন্দ উদ্বেগ প্রকাশ করে জানান, একজন গণমাধ্যমকর্মীকে তাৎক্ষণিক ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলাটি না করে জেলার গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ কিংবা বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দদের নিয়ে বিষয়টি সামাজিকভাবে নিস্পত্তির উদ্যোগে নেয়ার সুযোগ ছিল। সামাজিকভাবে নিস্পত্তি না হলে নিশ্চয়ই এই সাংবাদিকের দোষগুণগুলো তদন্ত সাপেক্ষে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা যেত বলে মনে করেন সাংবাদিকবৃন্দ।

সুনামগঞ্জ জেলা সাংবাদিক ফোরামের পক্ষ থেকে ফোরামের সাধারন সম্পাদক গ্রেফতারকৃত মাহতাব উদ্দিন তালুকদারের নিঃশর্ত মুক্তির জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও স্বরাষ্টমন্ত্রীর নিকট জোর দাবি জানানো হয়।

বিবৃতিদাতারা হচ্ছেন- সুনামগঞ্জ জেলা সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি ও মোহনা টেলিভিশনের জেলা প্রতিনিধ কুলেন্দু শেখর দাস, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক-দৈনিক নয়াদিগন্তের জেলা প্রতিনিধি তৌহিদ চৌধুরী প্রদীপ, অর্থ সম্পাদক-একুশে টেলিভিশনের প্রতিনিধি মোঃ আব্দুস সালাম, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক- দৈনিক বিশ্বমানচিত্রের জেলা প্রতিনিধি একে মিলন আহমদ, সদস্য ও দৈনিক ঢাকা প্রতিদিনের জেলা প্রতিনিধি শামীম আহমদ তালুকদার, প্রচার সম্পাদক-২৪ ঘন্টার প্রতিনিধি কে এম শহীদুল ইসলাম, মহিলা সম্পাদিকা তানিম আক্তার, সদস্য-দৈনিক যায়যায় কালের প্রতিনিধি মহিবুর রেজা টুনু, সদস্য-দৈনিক স্বাধীন বাংলার প্রতিনিধি মোঃ বাবুল মিয়া, সদস্য- দৈনিক ডেসটিনির প্রতিনিধি বিপলু রঞ্জন প্রমুখ।

অপরদিকে, সাংবাদিক মাহতাব উদ্দিন তালুকদারের গ্রেফতারে উদ্বেগ জানিয়েছেন বিবৃতি দিয়েছেন সুনামগঞ্জ প্রেসক্লাব (একাংশ) সভাপতি পঙ্কজ কান্তি দে ও সাধারণ সম্পাদক এ কে এম মহিম।

বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়, মাহতাব উদ্দিনকে যেভাবে গ্রেপ্তার করা হয়েছে সেটিতে আমরা উদ্বিগ্ন। তার বিরুদ্ধে অভিযোগের পর রাত দুইটায় সুনামগঞ্জ সদর থানা পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। কিন্তু মাহতাব উদ্দিন দাবি করেছেন, তিনি সংসদ সদস্যকে নিয়ে কোনো পোষ্ট দেননি। সোমবার রাতে তার ফেসবুক আইডি হ্যাকড হয়েছিল। প্রায় ছয় ঘন্টা পরা আরেকজনের সহায়তায় সেটি উদ্ধার করেন। তিনি নিজেই তার ফেসবুকে বিষয়টি জানিয়েছেন, যেহেতু মাহতাব উদ্দিন দাবি করছেন তিনি এটি করেননি, তার ফেসবুক আইডি হ্যাকড হয়েছিল তাহলে বিষয়টির তদন্ত হতে পারত। সামাজিকভাবেও নিষ্পত্তির সুযোগ ছিল। মাহতাব উদ্দিন যাতে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের অপব্যবহারের শিকার না হন তার দাবী জানান, জেলার বিভিন্ন সাংবাদিক ও শুভাকাঙ্খিরা মামলার জন্য নিন্দা জানিয়ে সাংবাদিকের মুক্তি ও মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান।

উল্লেখ্য, সোমবার রাত ১২ টায় মামলা হওয়ার পর ওই রাতই দুইটার দিকে সুনামগঞ্জ শহরের বকপয়েন্ট এলাকা থেকে সাংবাদিক মাহতাব উদ্দিনকে গ্রেপ্তার করা হয়। মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে, মাহতাব উদ্দিন তালুকতদার তার নিজ ফেসবুকে সংসদ সদস্যকে নিয়ে আপত্তিকর পোষ্ট দিয়েছেন। এই মিথ্যাচারের ফলে সংসদ সদস্যের মানহানি হয়েছে।

তবে মাহতাব উদ্দিন দাবি করেছেন, তিনি সংসদ সদস্য কে নিয়ে ফেসবুকে কোনো পোষ্ট দেননি। সোমবার সন্ধ্যায় তার ফেসবুক আইডি হ্যাক করে কে বা কারা এমন পোষ্ট দিয়েছিল। প্রায় ছয় ঘণ্টা পরে আরেক জনের সহায়তায় তিনি তার ফেইসবুক আইডিটি ফিরে পান। আইডি হ্যাকড হওয়ার বিষয়ে তিনি নিজে ফেসবুকে ও সদর থানার ওসিকে বিষয়টি অবহিত করে থানায় একটি জিডি ও করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু থানায় পরবর্তীতে কোন জিডি এন্ট্রি করাও তার পক্ষে করা সম্ভব হয়নি।
সুনামগঞ্জ সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সহিদুর রহমান জানান, মঙ্গলবার মাহতাব উদ্দিনকে আদালতে হাজির করলে আদালত তার জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap