আজ ১৩ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৬শে জানুয়ারি, ২০২২ ইং

সিলেটে ঈদগাহে নয়, মসজিদে আদায় হলো ঈদের নামাজ

সিলহট রিপোর্টার :: আজ পবিত্র ঈদুল ফিতর। সিলেটসহ সারা দেশে মুসলমানরা ধর্মীয় দুই বড় উৎসবের একটি (ঈদুল ফিতর) আজ। ঈদুল ফিতরের দুই রাকাআত ওয়াজিব নামাজের মধ্য দিয়ে ধর্মীয়ভাবে শুরু হয়েছে পবিত্র এই দিবসটি উপযাপন।

তবে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ পরিস্থিতিতে সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী এবার উন্মুক্ত স্থানে বা ঈদগাহে ঈদুল ফিতরের নামাজ অনুষ্ঠিত হয়নি। এরই ধারাবাহিকতায় আজ সিলেটেও শাহী ঈদগাহসহ নগর ও শহরতলির কোনো ঈদগাহেই অনুষ্ঠিত হয়নি ঈদের নামাজের জামাআত, অনুষ্ঠিত হয়েছে প্রতি মসজিদে।

ঈদের জামাত শেষে মুনাজাতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে মুক্তির জন্য কান্নায় ভেঙে পড়েন মুসল্লিরা। পাশাপাশি দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনা এবং সবধরনের বালা-মুসিবত থেকে দেশের সুরক্ষায় প্রার্থনা করা হয় মহান আল্লাহর কাছে।

জানা গেছে, স্বাস্থ্যবিধি মেনে সিলেট শাহজালাল দরগাহ মাজার মসজিদ, হাজী কুদরত উল্লাহ জামে মসজিদ ও খাসদবীরস্থ জামেয়া মদীনাতুল উলুম দারুসসালাম মাদ্রাসা মসজিদে ২টি করে এবং বন্দরবাজারস্থ কালেক্টরেট মসজিদে ৪টি জামাআত অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ সিলেটের শাহজালাল দরগাহ মাজার মসজিদে ঈদের নামাজের জামাআত দুইটি অনুষ্ঠিত হয়। প্রথমটি সকাল সাড়ে ৮টায় এবং দ্বিতীয়টি সাড়ে ৯টায়। এর একটিতে ইমামতি করেন হাফিজ মাওলানা আসজাদ আহমদ ও অপরটিতে হাফিজ মাওলানা হুজায়ফা হুসাইন।

অন্যদিকে, সিলেটের বন্দরবাজারস্থ হাজী কুতরত উল্লাহ জামে মসজিদেও ঈদের নামাজের জামাআত ২টি অনুষ্ঠিত হয়। সকাল সাড়ে ৮টায় একটি আর সাড়ে ৯টায় আরেকটি। একটিতে ইমামতি করেন মসজিদের ইমাম ও খতিব সাঈদ বিন নুরুজ্জমান আালমদানি এবং অপরটিতে মসজিদের সিনিয়র মোয়াজ্জিন।

অপরদিকে, বন্দরবাজার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে ঈদের জামাআত একটাই অনুষ্ঠিত হয়। সকাল সাড়ে ৮টায় অনুষ্ঠিত জামাআতে ইমামতি করেন মসজিদের ইমাম ও খতিব মুফতি মাওলানা আবু হুরায়রা নোমান।
এদিকে, বন্দরবাজার এলাকার সিলেট কালেক্টরেট মসজিদে ৪টি জামাত অনুষ্ঠিত হয়। সকাল ৭টা, ৮টা, ৯টা ও ১০টায় এই জামাতগুলো অনুষ্ঠিত হয়েছে। আর নগরের খাসদবীর জামেয়া মদীনাতুল উলুম দারুসসালাম মাদ্রাসা মসজিদে পবিত্র ঈদুল ফিতরের দুটি জামাআত অনুষ্ঠিত হয়। ১ম জামাআত সকাল ৮ টা এবং ২য় জামাত সকাল সাড়ে ৮ টার সময়।

নামাজ শেষে সিলেটের প্রতি মসজিদেই করোনামুক্তির জন্য স্রষ্টার কাছে কান্নায় ভেঙে পড়েন মুসল্লিরা। এসময় মুসল্লিদের আহাজারিতে ভারি হয়ে উঠে চারপাশ। পাশাপাশি দেশ ও জাতির সর্বাঙ্গীন মঙ্গল কামনা করে মুনাজাত করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap