আজ ৫ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৯শে জুন, ২০২২ ইং

সিলেটে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত, বাড়ছে বন্যার শঙ্কা

ডেস্ক রিপোর্টার :: অবিরাম বৃষ্টি আর উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত এতে কোনো ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি। এদিকে, সুনামগঞ্জের পর এবার সিলেটেও নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হওয়ায় এ জেলায় বন্যার আশঙ্কা বাড়ছে।

জানা গেছে, গোয়াইনঘাট উপজেলার হাওরঞ্চলের সিংহভাগ রাস্তাঘাট পানিতে তলিয়ে গেছে। এছাড়া আমন, রোপা আউশ ও আমনের বীজতলার ব্যাপক ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে। এছাড়া অবিরাম বৃষ্টিতে এ অঞ্চলের মানুষের স্বভাবিক জীবনযাত্রায় বিপর্যয় দেখা দিয়েছে।

গত কয়দিনের অবিরাম বৃষ্টি আর উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে গোয়াইনঘাটের পুর্ব জাফলং, আলীরগাঁও, পশ্চিম জাফলং, রস্তমপুর, লেঙ্গুড়া, তোয়াকুল, নন্দীরগাঁও ও ডৌবাড়ী ইউনিয়নের নিন্মাঞ্চল তলিয়ে গেছে। এতে এসব ইউনিয়নে বোনা আমন, রোপা আউশ ও আমনের বীজতলার ব্যাপক ক্ষতির আশঙ্কা করা হচ্ছে । এছাড়া এসব ইউনিয়নের হাওরাঞ্চলের প্রায় শতাংশ ৪০ রাস্তাঘাট পানিতে তলিয়ে গেছে।

এদিকে গোয়াইনঘাট উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. সুলতান আলী গোয়াইনঘাটে বন্যায় প্লাবিত বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা কৃষি সম্প্রসার মুহিবুর রহমান সিদ্দিকীসহ সংশ্লিষ্টরা।

এ ব্যাপারে গোয়াইনঘাট উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. সুলতান আলী জানান, নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হওয়ায় ১০/১৫ হেক্টর আউশ ধানের বীজতলা, ৩০ হেক্টর বোনা আউশ ও ৫ হেক্টর সবজিতলা পানিতে নিমজ্জিত হয়েছে। পানিতে নিমজ্জিত ওই বীজতলা ও সবজিতলা ২/৩ দিনের মধ্যে শুকিয়ে গেলে তেমন ক্ষয়ক্ষতি হবে না। তবে ৪ দিনের অধিক সময় এসব বীজতলা পানিতে ডুবে থাকলে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে।

গোয়াইনঘাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাজমুস সাকিব বলেন, জাফলং এলাকা পাহাড়ি ঢলে তলিয়ে যাওয়ায় চা-বাগানের কিছুটা ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে । তিনি জানান, বন্যায় জনগণের দুর্ভোগ লাগবে কয়েকটি আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap