আজ ৫ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং

দোয়ারাবাজারে দু’পক্ষের সংঘর্ষে বৃদ্ধের মৃত্যু

সংবাদদাতা, দোয়ারাবাজার (সুনামগঞ্জ) :: সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারের পল্লীতে মাদ্রাসা ভবন নির্মাণকাজে বালু-পাথর সংগ্রহ নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আব্দুন নুর (৫৫) নামে এক ব্যক্তি নিহত এবং উভয় পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। মঙ্গলবার (২ জুন) বিকেলে উপজেলার নরসিংপুর ইউনিয়নের দ্বীনেরটুক গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছে। নিহত আব্দুন নুর (৫৫) ওই গ্রামের মৃত আজমান আলীর পুত্র।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, সোমবার বিকালে (১ জুন) স্থানীয় দ্বীনেরটুক আলিম মাদ্রাসার অনুমোদিত নতুন চতুর্থ তলা ভবনের নির্মাণকাজ সফল করার লক্ষ্যে মাদ্রাসার গভর্ণিং বডির সদস্যসহ স্থানীয় সচেতন মহল এক পরমর্শ সভায় বসেন। সভায় ভবনের নির্মাণকাজের চাহিদা মোতাবেক বালু-পাথর সংগ্রহ নিয়ে দু’পক্ষে প্রথম দফা বাক-বিতন্ডা হয়। এরই জের ধরে মঙ্গলবার (২ জুন) বিকেলে দ্বীনেররটুক গ্রামের আব্দুন নুর ও প্রতিপক্ষ মর্তুজ আলীর পক্ষদ্বয়ের মধ্যে সুলফি, ঝাঁটাসহ দেশিয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে তুমুল রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ বাঁধে।

সংঘর্ষে আব্দুন নুর ও তার ছেলে সোহেল আহমদ গুরুতর আহত হন। গুরুতর আহত আব্দুন নুর ও তার ছেলে সোহেল আহমদকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে মঙ্গলবার (২ জুন) সন্ধ্যার দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক আব্দুন নুরকে মৃত ঘোষণা করেন এবং তার ছেলে সোহেল আহমদকে আশংকাজনক অবস্থায় লাইফ সাপোর্টে প্রেরণ করেন। তাদের মাথা, বুক ও গলাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে সুলফির আঘাত রয়েছে।
এছাড়া সংঘর্ষে আহত হয়েছেন আহত হয়েছেন নিহতের স্ত্রী , তার পুত্র অপর দুই ছেলে রাসেল আহমদ ও জুয়েল আহমদ এবং একই গ্রামের রবিউল হকের পুত্র মর্তুজ আলী (৩৫) সহ উভয় পক্ষের অন্তত ১০ জন।

আহত অন্যান্যদের বিভিন্ন হাসপাতালসহ স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। বর্তমানে উত্তপ্ত পরিস্থিতি বিরাজ করছে।

খবর পেয়ে দোয়ারাবাজার থানার এএসআই রাকিবুল হাসান এইমাত্র ( রাত পৌণে ৮টা) ঘটনাস্থলে পৌছে নিহতের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত হন বলে জানিয়েছেন। ওসি আবুল হাশেম বলেন, সন্ধ্যায় খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পাঠিয়েছি। পরিস্থিতি অস্থিতিশীল হলে ঘটনাস্থলে চাহিদামাফিক পুলিশ মোতায়েন করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap