আজ ১৩ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৬শে জানুয়ারি, ২০২২ ইং

দক্ষিণ সুরমার নর্থ ইস্ট হাসপাতালে করোনা চিকিৎসা শুরু

সিলহট রিপোর্টার :: সিলেটের দক্ষিণ সুরমার চন্ডিপুলে অবস্থিত নর্থইস্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে শুরু হয়েছে করোনা রোগীদের চিকিৎসাসেবা। গতকাল মঙ্গলবার (২ জুন) বিকেল থেকে এই হাসপাতালে কোভিড-১৯ আক্রান্তদের চিকিৎসা শুরু হয়।

সিলেটের বেসরকারি এই হাসপাতালটিতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ব্যবস্থাপনায় সরকারি উদ্যোগে করোনার চিকিৎসা শুরুর ব্যাপারে আলোচনা চললেও এখন পর্যন্ত এ ব্যাপারে চূড়ান্ত কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। তবে নর্থইস্ট হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ নিজেদের ব্যবস্থাপনায়ই করোনা রোগীদের চিকিৎসা শুরু করেছে।

এ বিষয়ে নর্থইস্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডের সমন্বয়ক অধ্যাপক ডা. নজমুল ইসলাম বলেন, মঙ্গলবার থেকে আমরা কোভিড-১৯ এর চিকিৎসা শুরু করেছি। এখন পর্যন্ত এখানে করোনার উপসর্গ নিয়ে ১৩ জন ভর্তি আছেন এবং করোনা আক্রান্ত একজন চিকিৎসাধীন আছেন।

তিনি জানান, করোনা চিকিৎসার জন্য ২০০ শয্যার হাসপাতালের পুরো একটি ভবন প্রস্তুত রাখা হয়েছে। যেখানে ১০টি নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্র (আইসিইউ) রয়েছে।

ডা. নাজমুল বলেন, এখনও সরকারের সাথে চুক্তি না হওয়ায় এখানে চিকিৎসার জন্য এখন হাসপাতালের নির্ধারিত যে চার্জ রয়েছে তা সেবাগ্রহীতাকে পরিশোধ করতে হবে।

এতদিন পর্যন্ত সিলেটের কেবল শহীদ ডা. শামসুদ্দিন হাসপাতালে করোনা রোগীদের চিকিৎসা প্রদান করা হচ্ছিলো। দিন-দিন করোনা শনাক্তের সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় রোগীর চাপ সামলাতে হিমশিম খাচ্ছিলো এক শ’ শয্যার এই হাসপাতাল।

এ অবস্থায় নতুন হাসপাতাল খুঁজতে হয় স্বাস্থ্যবিভাগকে। পর্যাপ্ত নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র (আইসিইউ) ও ভেন্টিলেটর থাকায় বেসরকারি নর্থইস্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালকেই প্রথম পছন্দ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সিলেটের কর্মকর্তাদের। প্রথম দিকে নর্থইস্ট হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসা প্রদানে আগ্রহ প্রকাশ করলেও পরে তারা এই অবস্থান থেকে সরে আসে। এপ্রিলের শেষ সপ্তাহে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরকে চিঠি দিয়ে করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসা প্রদানে অনীহার কথা জানায়। পরে স্বাস্থ্য অধিপ্তর থেকে আবার তাদের অনুরোধ করে চিঠি দেওয়া হয়।

এরপর করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসা প্রদানে রাজি হলেও চিকিৎসক-স্টাফ বেতন ও আনুষঙ্গিক চার্জ বাবদ তিন মাসে ২৬ কোটি টাকা দাবি করে নর্থইস্ট হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এছাড়া মন্ত্রণালয়ের কাছে একটি পিসিআর মেশিন ও দুটি ভেন্টিলেটর চেয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এই দাবিদাওয়া নিয়ে দুপক্ষের মধ্যে এখনও আলোচনা চলছে। ফলে সরকারি ব্যবস্থাপনায় নর্থইেস্ট করোনা চিকিৎসা শুরুর ব্যাপারে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।

এরমধ্যে গত ২৪ মে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগ থেকে জারিকৃত একটি নির্দেশনায় বলা হয়, সকল সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতাল ৫০ বা তার বেশি শয্যাবিশিষ্ট, তারা বাধ্যতামূলকভাবে কোভিড-১৯ সন্দেহভাজন ও সাধারণ রোগীদের জন্য পৃথক চিকিৎসা ব্যবস্থা চালু করবেন। এই নির্দেশনার আলোকে নিজেদের ব্যবস্থাপনায়ই করোনা চিকিৎসা শুরু করেছে নর্থইস্ট হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

এ ব্যাপারে সিলেট বিভাগীয় স্বাস্থ্য সহকারী পরিচালক (রোগ নিয়ন্ত্রণ) ডা. আনিসুর রহমান বলেন, নর্থইস্ট হাসপাতাল যে চাহিদার কথা জানিয়েছিলো তা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে মন্ত্রণালয় থেকে এখনো কোনো নির্দেশনা বা সিদ্ধান্ত আসেনি। নর্থইস্টের চাহিদায় মন্ত্রণালয় রাজি হলে এই হাসপাতালে সরকারি ব্যবস্থাপনায় করোনার চিকিৎসা শুরু হবে।

তিনি বলেন, সকল হাসপাতালকেই ৫০ টি শয্যা করোনা আক্রান্তদের জন্য বরাদ্দ রাখার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এই নির্দেশনার আলোকে নর্থইস্ট ইতোমধ্যে করোনার চিকিৎসা শুরু করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap