আজ [bangla_date], [english_date]

সিলেটে ছিনতাইকারীরা ছুরিকাঘাত করেও দমাতে পারেনি সাহসী যুবককে

ডেস্ক রিপোর্টার :

একজনকে ঝাপটে ধরার পর আরও দুই ছিনতাইকারী তাকে ছুরিকাঘাত করে। তবুও ঝাপটে ধরা ছিনতাইকারীকে ছাড়েননি সেই সাহসী যুবক। পাকড়াও করে তুলে দিয়েছেন পুলিশের হাতে। ঘটনাটি বুধবার (১ ডিসেম্বর) সিলেট নগরীর নয়াসড়ক পয়েন্টে ঘটেছে।

আটক ছিনতাইকারী মিজান আহমদ (২৮) সুনামগঞ্জ জেলার দিরাই থানার ভাটিপাড়া (তালাপাড়) গ্রামের লালসাদ আহমদের ছেলে। তিনি নগরীর কাজিটুলার একটি বাসায় ভাড়া থাকতেন। তিনি এখন সিলেট কোতোয়ালি থানাহাজতে রয়েছেন। বৃহস্পতিবার আদালতে প্রেরণ করা হবে।

পুলিশ ও ছিনতাইকারীদের কবলে পড়া যুবকের বাবা আবুল কাশেম জানান, নগরীর কাজীটুলা এলাকার বাসিন্দা আবুল কাশেমের ছেলে ও আহমদ ফুড’র বিক্রয় প্রতিনিধি আব্দুল আলী (২৫) বুধবার দুপুর পৌনে ১২টার দিকে অফিসের ৪৫ হাজার টাকা নিয়ে বাসার দিকে যাচ্ছিলেন। নগরীর নয়াসড়ক পয়েন্টস্থ ফুলকলির সামনে আসামাত্র আব্দুল আলীকে ৩ ছিনতাইকারী ঘিরে ধরে তার কাছে থাকা টাকা ছিনিয়ে নিতে চায়। এসময় ছিনতাইকারী মিজান আহমদকে ঝাপটে ধরেন আব্দুল আলী। মিজান ছাড়াতে বাকি দুই ছিনতাইকারী এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করলেও শিপনকে ছাড়েননি সাহসী যুবক আব্দুল আলী। তার চিৎকার শুনে এসময় নয়াসড়ক পয়েন্টে দায়িত্বরত পুলিশ সার্জেন্ট জয়ন্ত এগিয়ে গিয়ে স্থানীয় ও পথচারীদের সহায়তায় ছিনতাইকারীকে আটক ও আব্দুল আলীকে উদ্ধার করেন। তবে বাকি দুই ছিনতাইকারী পালিয়ে যায়।

পরে আব্দুল আলীকে সিলেট এম এ জি ওসমানী হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। বর্তমানে তিনি সেখানে চিকিৎসাধীন।

এদিকে, ট্রাফিক সার্জেট জয়ন্ত খবর দিলে শাহজালাল মাজার তদন্ত কেন্দ্রের একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ছিনতাইকারী মিজানকে আটক করে সিলেট কোতোয়ালি থানায় নিয়ে যায়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে শাহজালাল মাজার তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এস.আই আব্দুর রহিম বলেন, ছিনতাই মিজান বর্তমানে কোতোয়ালি থানায় রয়েছে। বৃহস্পতিবার তাকে আদালতে প্রেরণ করা হবে।

খবরসূত্র : সিলেটভিউ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap