আজ ৬ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২০শে জুন, ২০২২ ইং

হাকালুকিতে যা করলো নিষ্ঠুর শিকারিরা

ডেস্ক রিপোর্টার :: বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় মৌলভীবাজারের হাকালুকি হাওরে পরিযায়ী পাখি শিকারি চক্রের বিষ টোপে এক ব্যক্তির ৫০০ হাঁস মারা গেছে। এ ঘটনায় ৬ পাখি শিকারিকে চিহ্নিত করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

জানা গেছে, গত সোমবার (১০ ফেব্রুয়ারি) রাতে হাওরের বড়লেখা উপজেলার ইসলামপুর এলাকায় চোরা শিকারি চক্র বিষমিশ্রিত পাখিখাদ্য ছিটিয়ে রাখে। পরদিন মঙ্গলবার ইসলামপুর গ্রামের দরিদ্র খামারি ইসলাম উদ্দিনের খামারের প্রায় ৫০০ হাঁস এ বিষ খেয়ে মারা যায়।

ইসলাম উদ্দিন জানান, একটি সংস্থার কাছ থেকে ঋণ নিয়ে তিনি হাঁসের খামার করেন। হাঁসগুলো প্রতিদিন সকালে তিনি হাওরের পলোভাঙ্গা বিলে ছেড়ে দেন এবং বিকেলে নিয়ে আসেন।

মঙ্গলবার বিকেলে হাঁসগুলো আনতে গিয়ে দেখেন মৃত অবস্থায় পড়ে আছে। তার মধ্যে মাত্র কয়েকটি হাঁস জীবিত।
স্থানীয়রা জানান, শীত মৌসুমে হাকালুকি হাওরের বিভিন্ন বিলে পরিযায়ী পাখি আসে। এসব পাখি মারতে চোরা শিকারিরা বেপরোয়া হয়ে ওঠে। প্রায় সবক’টি বিলে পাখি শিকারিদের দৌরাত্ম্য দেখা যায়। শিকারিরা বিকেলে হাওরের বিলগুলোতে বিষজাতীয় দ্রব্য মিশ্রিত ধান ছিটিয়ে রাখে। রাতে পরিযায়ী পাখি খাবারের সন্ধানে বিলের পাড়ে এসে বিষমিশ্রিত ধান খেয়ে মারা যায়। পরে শিকারিরা মৃত পাখি জবাই করে বিভিন্ন বাজারে বিক্রি করে বলে এলাকাবাসী জানান।

জানা গেছে, বড়লেখা উপজেলার ইসলামপুর, হাল্লা ও খুঁটাউরা এলাকায় সবচেয়ে বেশি পাখি শিকার হয়।
বড়লেখা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ইয়াছিনুল হক জানান, মৌখিক অভিযোগ পেয়ে ঘটনা তদন্তের জন্য মঙ্গলবার পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

খবর : সিলেটভিউ২৪

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap